অলসদের খুঁজে নিয়ে টাকা দেবে বিশ্ববিদ্যালয়

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ইনডিপেনডেন্ট জানায়, জার্মানির হ্যামবুর্গে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব ফাইন আর্টসের একদল গবেষক অলস ব্যক্তিদের সন্ধান করছেন।

মানুষের মধ্যে আলস্য ও লক্ষ্যহীনতার মাত্রা নির্ণয়ের জন্য একটি গবেষণা প্রকল্প হাতে নিয়েছেন তাঁরা।

ওই প্রকল্পের জন্য নির্বাচিত তিন অলসকে জনপ্রতি ১ হাজার ৬০০ ইউরো (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা প্রায়) দেওয়া হবে। তবে এই প্রকল্পের জন্য নির্বাচিত হতে হলে একজন ব্যক্তিকে এতটাই অলস হতে হবে যে তিনি দিনভর প্রায় নিষ্ক্রিয়ই থাকবেন।

গবেষকদের ভাষায়, আলস্যে এমনভাবে সময় পার করতে হবে, যা একজন সাধারণ মানুষের পক্ষে পারা প্রায় অসম্ভব। এই প্রকল্পে অংশ নিতে আবেদনপত্রে দুটো প্রশ্ন রাখা হয়েছে। এক. আপনি কী করতে চান না?

দুই. এই বিশেষ কাজ (কোনো নির্দেশিত কাজ) না করা কেন গুরুত্বপূর্ণ? জার্মানির যেকোনো এলাকার বাসিন্দা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময় আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর। তবে সেরা তিন কুড়ে নির্বাচনে বাছাইপর্বের চূড়ান্ত ধাপে কী ধরনের পরীক্ষা নেওয়া হবে, তা অবশ্য খোলাসা করা হয়নি।

গবেষণায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন হ্যামবুর্গের ইউনিভার্সিটি অব ফাইন আর্টসের অধ্যাপক ফ্রেডরিখ ভন বরিস। তিনি মনে করছেন, ‘আর্থ-সামাজিক’ পরিবর্তনের জন্যই মানুষের মধ্যকার আলস্য নিরূপণ করা জরুরি।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, ‘আমরা যদি এমন সমাজে বাস করি, যেখানে ভোগ কম, অপচয়ও কম, তা সঠিক মূল্যবোধের ব্যবস্থা হতে পারে না।

বরং এমন সমাজই কি ভালো নয়, যেখানে আমরা বলতে পারি, আমার স্বপ্ন দেখার সময় আছে কিংবা বন্ধুর সঙ্গে আড্ডা দেওয়ার সময় আছে অথবা কোনো কিছু না করে অলস সময় কাটানোর মতো সময়ও আমার আছে?’

x