বাড়ছে ট্রেনের ভাড়া, ছাড়িয়ে যাচ্ছে বিমানকেও

আবারও ভাড়া বাড়ছে ট্রেনের। প্রস্তাবিত ভাড়া প্রায় প্রতিটি রুটে সড়ক পথের ভাড়াকে তো ছাড়িয়েছেই, কোন কোন ক্ষেত্রে এসি কেবিনের ভাড়া আকাশ পথকেও ছাড়িয়ে গেছে।

যোগাযোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি কার্যকর হলে মুখ থুবড়ে পড়বে রেল।ঢাকা থেকে উত্তরের জেলা সৈয়দপুরে বিমানে পৌঁছাতে সময় লাগে ৪০-৪৫ মিনিট ভাড়া ২৫০০ থেকে ২৭০০ টাকা।

রেলপথে পঞ্চগড়ে যেতে সময় লাগে ১০-১২ ঘন্টা আর এ পথে ট্রেনের এসি কেবিনের নতুন প্রস্তাবিত ভাড়া ধরা হয়েছে জনপ্রতি ২৬৯০ টাকা।

একইভাবে ঢাকা থেকে চট্রগ্রাম, যশোর ও রাজশাহীর প্রস্তাবিত ট্রেন ভাড়া বিশ্লেষণ করে দেখা যায় প্রায় বিমানের সমপরিমান।

তেলের দাম, পরিচালন ও রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয় বৃদ্ধির কারণ দেখিয়ে ভাড়া বাড়াচ্ছে রেলওয়ে, যেখানে শোভন চেয়ারে ২৫ আর এসি আসনে বাড়ছে ৮০ শতাংশ।সাধারণ যাত্রীরা জানান, ট্রেনে ভাড়া বাড়ছে কিন্তু সেবার মান বাড়ছে না।

সেই সাথে ভাড়া যদি বৃদ্ধি পায় তাহলে আমাদের জন্য খুবই কষ্টকর হবে।

প্রস্তাবিত ভাড়া চূড়ান্ত নয় উল্লেখ করে যাচাই বাছাই শেষে যৌাক্তিক হারে ভাড়া কার্যকর করা হবে বলে জানিয়েছে রেলওয়ে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামসুজ্জামান বলেন, মন্ত্রণালয় এবং রেলওয়ে মিলে কমিটি হালনাগাদ করছে। অনেকগুলো অবজারভেশন আছে, সে সব অভজারভেশন দিয়ে আবার তারা বসবে।

ভারতীয় রেলওয়ে বিদেশি রেলওয়ে যারা আছে তাদের সাথে কমপেয়ার করবে। এটা করতে অনেক সময় লাগবে। যোগাযোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নতুন ভাড়া কার্যকর হলে রেল থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে সাধারণ মানুষ।

মুখ থুবড়ে পড়তে পারে রেল ব্যবস্থা।যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ বলেন, ভাড়া যদি ব্যাপক পরিমাণে বৃদ্ধি পায় তাহলে সাধারণ মানুষ বহন করতে পারবে না।

কেননা এই বাহনটা কিন্তু সাধারণ মানুষের। এতে যাত্রী সংখ্যা কমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। মালবাহী ট্রেনে ২৫ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির সুপারিশ করা হয়েছে প্রস্তাবিত নতুন ভাড়ায়।

আরো পড়ুনঃ দারুণ সুখবর জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আশ্বাস দিয়েছেন দ্রুত যাচাই-বাছাই করে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির আওতায় আনা হবে।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি রয়েছে বলেও জানান শিক্ষামন্ত্রী।মন্ত্রী আজ সোমবার শিক্ষা বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ইরাব) আয়োজনে এক অনলাইন সেমিনারে এ কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির আওতায় আনা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ বিষয়ে সম্মতি রয়েছে। যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে এসব প্রতিষ্ঠানগুলোকে এমপিওভুক্তি করা হবে’।

এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘ইবতেদায়ি শিক্ষকদের মানবিক জীবন-যাপনের বিষয়টি আমরা অবগত আছি। এসব মাদরাসাগুলোকে এমপিওভুক্তিতে আনার কাজ শুরু করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে সম্মতি দিয়েছেন।

এটি নিয়ে কাজ চলমান রয়েছে। যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে যোগ্য প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির আওতায় নিয়ে আসা হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘সকল শিক্ষার্থীকে শুধু পড়াশোনা করে চাকরি খুঁজলে চলবে না, তাকে উদ্যোক্তা হতে হবে। এ জন্য আমরা সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষাকে সবচেয়ে বেশি জোর দিয়েছি।

সাধারণ শিক্ষার মধ্যে সিলেবাসে বাধ্যতামূলক একটি কারিগরি ট্রেড অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ২০২১ সাল থেকে এটি কার্যকর করার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না।’

ইরাবের সভাপতি মোসতাক আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান,

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডক্টর মোরাদ হোসেন মোল্লা, বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আবুল কাশেম প্রমুখ। অনুষ্ঠাটি সঞ্চালনা করেন- ইরাবের সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশেই ভ্যাকসিন উৎপাদনের অনুমতি দেবে রাশিয়া: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সুযোগ থাকলে রাশিয়া বাংলাদেশেই ভ্যাকসিন উৎপাদনের অনুমতি দেবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

সময় তিনি আরো বলেন, রাশিয়া জি টু জি পদ্ধতিতে ভ্যাকসিন দিতেও আগ্রহী।

তিনি আরো জানান, করোনা পরীক্ষায় দুইটি পিসিআর মেশিনসহ অ্যান্টিজেন টেস্টের জন্য বাংলাদেশকে কিট দেবে দক্ষিণ কোরিয়া সরকার।

আরো পড়ুনঃ ভ্যাপসা গরম নিয়ে দু:সংবাদ দিল আবহাওয়া অফিস

ভাদ্রের শুরুতে বৃষ্টি থাকলেও মাঝামাঝিতে এসে শুরু হয়েছে ভ্যাপসা গরম। ভাদ্রের এ ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অ’তিষ্ট। আর এ ভ্যাপসা গরম আরও কয়েক দিন থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ সোমবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের অনেক জায়গায়; রাজশাহী, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু–এক জায়গায় বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এতে আরও বলা হয়েছে, আজ সোমবার দিন ও রাতের তাপমাত্রা অ’পরিবর্তিত থাকতে পারে। আগামী কয়েক দিন আবহাওয়া পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।

এদিকে, আবহাওয়াবিদ আবদুল মান্নান বলেন, ‘ভাদ্র মাসের শুরুতে বৃষ্টি হয়েছে। তবে এখন মৌসুমী বায়ু কিছুটা কম সক্রিয় রয়েছে।

তাই আগামী দুদিন বৃষ্টি কম হবে। বিশেষ করে ঢাকাসহ দেশের মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চলে বৃষ্টি কম হবে। তবে উত্তরাঞ্চলে বৃষ্টি তুলনামূলক বেশি হতে পারে।

তার মানে এই নয় যে মুষলধারায় বৃষ্টি হবে। এ কারণে গরমের ভ্যাপসা অনুভূতি আরও কয়েক দিন থাকবে।’

x