মেসির জন্য ৯০০ মিলিয়ন সংগ্রহে ভক্তরা, জোগাড় হয়েছে ২৬২ মিলিয়ন

টাকার ভয় দেখিয়ে মেসিকে আটকে রাখার শেষ চেষ্টা করছে বার্সেলোনা। কিন্তু সেই সুযোগ দেবেন না মেসি ভক্তরা। বিশ্বজুড়ে আর্জেন্টাইন খুদেরাজের কোটি কোটি ভক্ত। তাকে আটকে রাখা এত সহজ!

এদিকে বার্সেলোনা বলতে গেলে একপ্রকার হুমকিই দিচ্ছে। মেসিকে নিতে হলে রিলিজ ক্লজের ৭০০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে তবেই নিতে হবে কোনো ক্লাবের। অথচ মৌসুম শেষে মেসি যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন, এমন একটা চুক্তি ছিল ক্লাবের সঙ্গে।

ঝামেলা বাধিয়েছে করোনা। এমনিতে লা লাগা মৌসুম যখন শেষ হয়, সেই হিসাব করে জুনের মধ্যে জানানোর কথা ছিল মেসির। কিন্তু করোনার কারণে লা লিগা মৌসুম পিছিয়ে শেষ হয়েছে আগস্টে। সেই হিসেবে মেসির এখন ফ্রি হওয়ার কথা। কিন্তু বার্সা ওই জুনের হিসাব টেনে অধিনায়ককে ধরে রাখতে চায়। যেতে হলে রিলিজ ক্লজের ৭০০ মিলিয়ন ইউরো দিয়েই যেতে হবে, না হলে আইনি ঝামেলায় পড়বেন মেসি।

এই খবর শুনে জার্মান ক্লাব স্টুটগার্টের এক ভক্ত তাদের ক্লাবে মেসিকে নিয়ে আসতে ফান্ড খুলেছেন। ৭০০ মিলিয়ন নয়, মেসির জন্য আরও বেশি (৯০০ মিলিয়ন ইউরো) অর্থ জোগাড় করতে মাঠে নেমেছেন টিম আর্টম্যান নামের ওই পাগল ভক্ত।

তারচেয়ে বড় খবর হলো, আর্টম্যানের এই চেষ্টায় পাঁচদিনের মাথায় ২৬২ মিলিয়ন ইউরো জোগাড়ও হয়েছে। বিকল্প ভাবনাও মাথায় রেখেছেন আর্টম্যান। যদি সময়মতো পুরো টাকা জোগাড় না হয় কিংবা মেসি অন্য ক্লাবে চুক্তি করেন, তবে ওই অর্থ ‘ওয়াটার চ্যারিটি’তে দান করে দেয়া হবে।

ফান্ড সংগ্রহের জন্য খোলা ‘গো ফান্ড মি’ পেজের বর্ণনায় লেখা হয়েছে, ‘আমরা ভিএফবি ভক্তরা লিও মেসির ট্রান্সফারের অর্থ সংগ্রহ করছি। এই ইভেন্টে পরিকল্পনা মতো অর্থ যদি জোগাড় না হয় কিংবা মেসি অন্য কোনো ক্লাবে যোগ দেন, তবে এই অর্থের পুরোটাই দান করা হবে ভিভা কন একোয়ায়।

স্টুটগার্টের ভক্তদের এমন প্রচেষ্টা টুইটারে ঝড় তুলেছে। একজন টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘সারাদিনে আমার দেখা সেরা বিষয় ছিল এটা।’ আরেকজনের লেখা, ‘এই সময়ের কল্পনা।’

x