ফুটবল ইতিহাসের বড় বিশ্বাসঘাতক হতে যাচ্ছেন মেসি

শৈশব থেকেই বার্সেলোনাতে খেলেছেন লিওনেল মেসি। পায়ের জাদুতে প্রতীক হয়ে উঠেছেন ক্লাবের, ‘মিস্টার বার্সেলোনা’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন নিজেকে। দীর্ঘ দুই যুগ পর সেই সম্পর্কের ইতি টানছেন এলএম টেন। অতি নাটকীয় কিছু না ঘটলে আগামী মৌসুমে নতুন কোনো ক্লাবের হয়ে খেলতে দেখা যাবে আর্জেন্টাইন সেনসেশনকে। আচমকা মেসির এমন সিদ্ধান্ত প্রায় সবাইকে বিস্মিত করেছে।

তবে লিওনেল মেসি প্রায়ই বলতেন, ফুটবল ক্যারিয়ারটা তিনি শেষ করবেন বার্সেলোনাতেই। সময়ের সঙ্গে পাল্টে গেছে মেসির সুর। শোনা যাচ্ছে, ম্যানচেস্টার সিটির প্রস্তাবে সম্মতি প্রকাশ করেছেন আর্জেন্টাইন এই মহাতারকা।

কিন্তু মেসি বার্সেলোনা ছেড়ে যাক, তা কখনোই চায় না ক্লাবটির ভক্ত-সমর্থকরা। আর স্প্যানিশ ক্রীড়া সাংবাদিক এদু আগিররে মনে করেন, মেসির বার্সেলোনা ছাড়াটা হবে ফুটবল ইতিহাসের বড় বিশ্বাসঘাতকতা।

বার্সেলোনার সঙ্গে নানান কারণে সম্পর্ক খারাপ হয়ে যাওয়ায় গত ২৫ আগস্ট বুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে লিওনেল মেসি জানান, তিনি আর ন্যু ক্যাম্পে থাকছেন না। এরপরই মেসি ভক্তরা বিক্ষোভে নামে।

বার্সা সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তোমেউয়ের পদত্যাগের দাবি তুলে তারা। তাদের বিশ্বাস, বার্তোমেউকে সরিয়ে দিলেই বার্সেলোনায় থাকবেন মেসি। এরপর সংবাদমাধ্যমে খবর আসে, মেসি ন্যু ক্যাম্পে থাকতে রাজি হলে পদত্যাগ করবেন বার্তোমেউ।

কিন্তু কোনো কিছুই মেসির মন গলাতে পারছে না। ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তে অটল তিনি। সাংবাদিক এদু আগিররের পছন্দ হয়নি ব্যাপারটা। বার্সেলোনার প্রতি মেসির আচরণে সন্তুষ্ট নন তিনি। স্প্যানিশ টিভি প্রোগ্রাম ‘এল চিরিংগুইতো দে ইয়োগোনেস’-এ আগিররে বলেন, আমার কাছে মেসির বার্সেলোনা ছাড়াটা হবে ফুটবল ইতিহাসের বড় বিশ্বাসঘাতকতা।

বার্সেলোনা সমর্থকদের এমনটা প্রাপ্য নয়। মেসি তাদের সঙ্গে প্রতারণা করছে । মেসির উচিৎ হবে একটা সংবাদসম্মেলন ডেকে সবাইকে বলা যে আমি কোথাও যাবো না। কারণ এখানে আমার অনেক স্মৃতি। মেসি তখনই যাচ্ছে যখন বার্সার নৌকা ডুবতে বসেছে। এই মুহূর্তে তার ক্লাব ছাড়া মোটেও উচিত হবে না।

এদিকে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসিকে এর আগে একাধিকবার দলে ভেড়ানোর চেষ্টা চালিয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি। মেসি বার্সেলোনা ছাড়তে রাজি না হওয়ায় অপূর্ণই থেকে যায় সিটিজেনদের সেই চাওয়া। তবে এবার ছয়বারেরর বর্ষসেরা ফুটবলারকে ইতিহাদে আনার সবচেয়ে ভাল সুযোগ ম্যানচেস্টারের আকাশী-নীলদের। গোলডটকম একটি বৃটিশ সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ম্যানচেস্টার সিটির প্রস্তাবে রাজি লিওনেল মেসি।

পাঁচ বছরের চুক্তিতে মেসিকে নিতে চায় সিটি। চুক্তি অনুযায়ী প্রথম তিন বছর মেসি খেলবেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে। শেষের দুইবছর তিনি খেলবেন সিটিজেনদের মালিকানাধীন আরেক ক্লাব নিউইয়র্ক সিটিতে।

যুক্তরাষ্ট্রের মেজর সকার লীগে (এমএলএস) খেলে নিউইয়র্ক সিটি। বৃটিশ সংবাদমাধ্যমটি মেসির একটি ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা মেসির সেরাটা বের করে আনতে পেরেছে। মেসি চাইছেন আবারো তিনি গার্দিওলার সঙ্গে জুটি বেঁধে আগের সেই সোনালি দিন ফিরিয়ে আনতে চান।

লিওনেল মেসি ছয়বার ফিফা বর্ষসেরা হয়েছেন। এরমধ্যে চারবারই জিতেছেন গার্দিওলা বার্সেলোনার কোচ থাকাকালীন। কাতালানদের জার্সিতে মেসির জেতা চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লীগের দুটি এসেছে গার্দিওলা যখন বার্সেলোনার কোচ ছিলেন। মেসির বিশ্বসেরা হয়ে ওঠার শুরুটা গার্দিওলার হাত ধরেই। ২০০৮ থেকে ২০১২ পর্যন্ত পেপ গার্দিওলার অধীনে ১৫টি শিরোপা জিতেছে বার্সেলোনা। যাতে বড় অবদান মেসির।

ক্লাবে করোনা পরীক্ষা করাননি। নতুন ম্যানেজার রোনাল্ড কোম্যানের অনুশীলনেও যাননি। বুরোফ্যাক্সে ক্লাব ছাড়তে চাওয়ার ইচ্ছে জানানোর পরেই লিওনেল মেসি বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন, কোনো অবস্থাতেই আর তিনি বার্সেলোনায় থাকবেন না।

x