দাঁত সাদা ঝকঝকে করতে ব্যবহার করুন তেজ পাতা

দাঁত থাকতে আমারা দাঁতে মর্যাদা দিতে জানি না অনেকে। হাসির সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিতে সুন্দর দাঁতের জুড়ি নেই। আর জন্য হতে হবে দাঁতে প্রতি যত্নশীল। তা না হলে। অনেক মানুষই রয়েছেন সুন্দর দাঁত পাওয়ার জন্য নানা চেষ্টা করে থাকেন কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়ে ওঠেনা।

তবে আপনি জানেন কি সুন্দর দাঁতের জন্য রয়েছে ফেসপ্যাক। যা আপনার দাঁতের সমস্ত দাগ ও ময়লা দূর করে সাদা ঝকঝকে করবে আপনার দাঁত। দাঁতের হলদেটে ভাব, ময়লা, দাঁতে পাথুরে দাগসহ নানা প্রকার দাগ সারাতে এই তেজপাতার প্যাকটি আপনি নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন।

তেজপাতার প্যাক বানানোর নিয়ম:
৪টি শুকনো বা কাঁচা তেজপাতা নিবেন। এরপর কমলা বা লেবুর খোসা নিতে হবে সমপরিমাণ। মুখে দুর্গন্ধের সমস্যা যদি থাকে তাহলে সাথে ২/৩টি লবঙ্গ নিবেন। এরপর তেজপাতা বেটি মিহি করে নিতে হবে। এরসাথে কমলা লেবু বা পাতি লেবুর খোসা শুকিয়ে লবঙ্গের সাথে মিশিয়ে গুঁড়ো করে নিতে হবে।

এরপর সবগুলো উপকরণ এর সাথে সামান্য পরিমান লবণ মিশিয়ে নিবেন। তবে লক্ষ্যনীয় যে ফলের খোসা অবশ্যই শুকিয়ে নিতে হবে। কেননা কাঁচা অবস্থায় এগুলো দাঁতের জন্য খুবই ক্ষতিকর।

এবার তেজাপতার এই মিশ্রণটি পানির সাথে সপ্তাহে কমপক্ষে ৩ দিন অন্তত ১ বেলা করে দাঁত মাজতে হবে। তবে প্রতিদিন এই মিশ্রণ ব্যবহার করবেন না। এতে দাঁতের ক্ষতি হতে পারে।

দাঁতের যত্নে যে পদ্ধতি মেনে চলা ভালো:
১। বেশি জোরে দাঁত ব্রাশ করা এবং অতিরিক্ত দাঁত ব্রাশ করা হতে বিরত থাকুন। কেননা এত করে দাঁতের এনামেলের ক্ষতি হয় যা দাঁতের জন্য খারাপ প্রভাব বয়ে নিয়ে আসে। ২। রোজ সকাল ও রাতে খাবার এর দাঁত ব্রাশ করে ঘুমাতে যাবেন। শুধু সকালেই দাঁত ব্রাশ নয়, কেননা রাতের খাবারের পরও দাঁত ব্রাশ করতে ভুলবেন । রাতে খাবার পর যে খাদ্যকণা দাঁতে লেগে থাকে তা দাঁতের জন্য ক্ষতিকর।

দাঁতের যত্নে নিয়মিত সকালে ও রাতে খাবার পর দাঁত ব্রাশ করবেন। ভুলেও কয়লা, ছাই ইত্যাদি;দিয়ে দাঁত মাজবেন না। কেননা এগুলো দাঁত পরিস্কার করে ঠিকই কিন্তু তাতে দাঁতের এনামেল নষ্ট হয়ে দাঁতের দীর্ঘ স্থায়ী সমস্যা সৃষ্টি করে। তবে আপনি চাইলে নিমের দাঁতন দিয়ে দাঁত মাজতে পারেন। তবে প্রতি ৬ মাস অন্তর অন্তর দাঁত চেকআপ করিয়ে নিন।

x