নেই সাকিব, গ্রুপপর্বেই বাদ চ্যাম্পিয়ন বার্বাডোজ

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) গত আসরের চ্যাম্পিয়ন দল বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস। দলটিকে চ্যাম্পিয়ন করতে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন বাংলাদেশ দলের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

কিন্তু এবার আইসিসি কর্তৃক নিষিদ্ধ থাকার কারণে সিপিএল খেলতে যেতে পারেননি সাকিব। তার সাবেক দল বার্বাডোজের অবস্থাও হয়েছে তথৈবচ। একের পর এক ম্যাচ হেরে গ্রুপপর্ব থেকেই বাদ পড়ে গেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস।

দলটির সামনে শেষ সুযোগ ছিল বৃহস্পতিবার রাতে বর্তমান রানারআপ গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে। কিন্তু টানা দ্বিতীয় ম্যাচে একই দলের কাছে হেরে বিদায়ঘণ্টা বেজে গেছে বার্বাডোজের। পরপর দুই ম্যাচে বার্বাডোজকে হারিয়ে গত আসরের ফাইনালে হারের শোধ নিয়েছে গায়ানা।

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৮৯ রানের বেশি করতে পারেনি বার্বাডোজ। এ নিয়ে টানা তিন ম্যাচে ১০০’র কম রানে থেমেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। জবাবে ৩৪ বল হাতে রেখে ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে গেছে গায়ানা।

বার্বাডোজকে অল্পেই আটকে রাখতে বড় অবদান রেখেছেন রোমারিও শেফার্ড। চার ওভারের স্পেলে এক মেইডেনসহ নিয়েছেন ৩টি উইকেট। চার ওভার বোলিং করে মাত্র ১২ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়েছেন ইমরান তাহির। বার্বাডোজের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৮ রান করেন মিচেল স্যান্টনার ও নিম ইয়ং।

রান তাড়া করতে ৪৯ রানে ৪ উইকেট হারালেও শেষপর্যন্ত জিততে সমস্যা হয়নি গায়ানার। চন্দরপল হেমরাজ ২৯ ও শিমরন হেটমায়ার ৩২ রান করে দলের জয় নিশ্চিত করেন। বল হাতে চেষ্টা করেছিলেন বার্বাডোজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার, ৪ ওভারে মাত্র ১০ রানে নেন ২ উইকেট। যা ম্যাচের ফল পরিবর্তনে যথেষ্ঠ ছিল না।

গ্রুপের নয় ম্যাচের মধ্যে সাতটিতেই হেরে বিদায় নিশ্চিত হয়েছে বার্বাডোজের। তাদের পরাজয়ের ফলে মাত্র ৭ পয়েন্ট নিয়ে সেরা চারের টিকিট পেয়ে গেছে জ্যামাইকা তালাওয়াজ। যদিও তাদের হাতে রয়েছে দুই ম্যাচ। অন্যদিকে নিজেদের ১০ ম্যাচ শেষে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে গায়ানা।

x