মাশরাফির ব্রেসলেট নিলামের ৪২ লাখ টাকা দিয়ে হচ্ছে হাসপাতাল

স্বভাবগত ভাবেই ব্যক্তিগত উদ্যোগে নড়াইলের সাধারণ মানুষের জন্য বাড়তি কিছু করার তাড়না সবসময়ই কাজ করে দেশের অন্যতম সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার।

তবে নড়াইল-২ আসনের সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর মানুষের কাছাকাছি গিয়ে কাজ করার সুযোগটা যেন ভালোভাবে লুফে নিলেন টাইগার এক্সপ্রেস।

করোনাকালে নানাভাবে কার্যক্রম চালিয়েছেন নিজ এলাকায়। বছর তিনেক আগে প্রতিষ্ঠা করা নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা অনেকটা সহজ হয়ে যায়।

করোনার সময়ই অসহায় মানুষের কল্যাণে নিজের দীর্ঘ দিনের সঙ্গী হাতের ব্রেসলেটটি নিলামে তোলেন, যা রেকর্ড ৪২ লাখ টাকায় বিক্রি হয়।

এই টাকার একটা বড় অংশ নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনে যাবে আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন। আর সে অর্থ দিয়েই এবার হাসপাতাল নির্মাণ হতে যাচ্ছে।

আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসে গতকাল (৪ সেপ্টেম্বর) নড়াউল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের তৃতীয় বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে।

শরীফ আব্দুল হাকিম ডায়াবেটিক ও থায়রো কেয়ার সেন্টারে তৃতীয় বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান গতকাল ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল নির্মানের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

অনুষ্ঠানে বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে কেক কাটা হয়, সভাপতিত্ব করেন নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের সহ সভাপতি ও নড়াইল প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শামীমুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, মাশরাফির বাবা গোলাম মর্তুজা, সাংসস সাঈদ হাফিজুর রহমান, হেক্সা গ্রুপের চেয়ারম্যান আকরামুজ্জামান, অনুষ্ঠান পরিচালনায় দায়িত্বে ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুসাইন আহম্মেদ সোহান।

২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠার পর সামাজিক নানা কার্যক্রমে অংশ নেয় নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন। মাশরাফির ব্রেসলেট বিক্রির ২৭ লাখ টাকা জমা হয় ফাউন্ডেশনের একাউন্টে।

বাকি অর্থ দিয়ে ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় অসহায় শিক্ষার্থী ও ক্রিকেট কোচদের সাহায্য করা হয়। প্রস্তাবিত হাসপাতাল বর্তমানে সরকারি অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে, অনুমোদন মিললেই শুরু হবে নির্মাণ কাজ।

x