ম’সজিদে বি’স্ফোরণ, মাটি খুঁড়ে পাইপে মিলেছে লিকেজ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা এলাকায় শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে আটটার দিকে বায়তুস সালাত জামে ম’সজিদে বি’স্ফোরণের ঘটনায় শোকস্তব্ধ গোটা দেশ। ঘটনার কয়েকদিন অ’তিবাহিত হওয়ার পর জানা গেছে ম’সজিদে ছয়টি এসির একটিও বি’স্ফোরিত হয়নি। লিকেজ থেকে বের হওয়া গ্যাস এবং বিদ্যুতের স্পার্ক থেকে বের হওয়া আ’গুনেই এই বি’স্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

ম’সজিদে বি’স্ফোরণের ঘটনায় গ্যাসের লাইনে লিকেজ রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করতে ম’সজিদের সামনে ও আশপাশের পাঁচটি পয়েন্টে মাটি খুঁড়ে পরীক্ষা করছে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড।সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে ওই তল্লা’শীর কাজ শুরু হয়। কয়েকটি স্থানে মাটি খোঁড়া হচ্ছে। এর মধ্যে বিকেলে দুটি পাইপে লিকেজ পাওয়া গেছে। তবে এটা পানির পাইপ না গ্যাসের সেটা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

তিতাসের নারায়ণগঞ্জ অফিসের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মফিজুল ইস’লাম বলেছেন, আমাদের গ্যাস লিকেজের ব্যাপারে কেউ নোটিশ করেনি। নোটিশ পেয়ে আম’রা কাজ করিনি এমন রেকর্ড নেই।অ’ভিযোগ রয়েছে আমাদের গ্যাসের লিকেজ থেকেই এমন ঘটনা ঘটেছে, সেটি পরীক্ষা করতেই গ্যাস লাইনগুলো পরীক্ষা করা হচ্ছে।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক আলব্দুল্লাহ আল আরেফিন জানান, এসি বি’স্ফোরণ হয়নি। ইতোমধ্যে ম’সজিদের একটি এসি খুলে দেখা হয়েছে। সেখানে দেখা যায়, আ’গুনে এসির উপরে কভা’র নষ্ট হয়েছে। তবে ভিতরের সব কিছুই ঠিক আছে। এসি বি’স্ফোরণ হয়নি।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজে’লার ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে ম’সজিদে ভ’য়াবহ বিষ্ফোরণ ও অ’গ্নিকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটে। গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে এই বি’স্ফোরণ হয়েছে এমন ধারণার পর থেকেই ওই এলাকার গ্যাস বন্ধ রেখেছে তিতাস। অ’ভিযোগ আছে, ম’সজিদ কমিটি আগেই জানিয়েছিলো তিতাসকে গ্যাস লিকেজের কথা। কিন্তু দাবি করা ৫০ হাজার টাকা ঘুষ না দেয়ায় সেই লাইনটি ঠিক করেনি তিতাস। এ ঘটনায় দেশজুড়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

x