‘হলুদ পদ্ম’ যা বিশ্বে প্রথমবারের মতো ফুটেছে বাংলাদশে

পদ্ম ফুলের সেই ভালোলাগা আরো বাড়িয়ে দিলো হলুদ পদ্ম। যা বিশ্বে প্রথমবারের মতো ফুটেছে বাংলাদশে।

ঠিক হলুদ নয় তবে অনেকটাই হলুদাভ।

অফহোয়াইটও বলা যেতে পারে। এমনই এক পদ্ম ফুলের দেখা পাওয়া গেছে কুমিল্লার বুড়িচং উপজে’লার দক্ষিণ গ্রাম বিলে।

যেন অসংখ্য পাঁপড়ির একটি তোড়া সবুজ পাতা ভে’দ করে মা’থা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে।

পূর্ণ ফোটা হলুদ পদ্মের পাশে ফুটেছে একটি গো’লাপি পদ্মও। যদিও পাঁপড়ির দৈর্ঘ্য গো’লাপি পদ্মেরই বড়।

বিশ্বে মূলত দুই ধরনের পদ্ম ফুল দেখা যায়। এশিয়ান বা আ’মেরিকান পদ্মে একটি ফুলে পাপড়ি থাকে ১২ থেকে ১৮টি।

সেখানে বুড়িচংয়ের এই হলুদ পদ্মে পাপড়ি সংখ্যা ৬০টিরও বেশি। ভেতরের পাপড়ি পুংকেশরের সঙ্গে যু’ক্ত থাকে। এই ফুলে পুংকেশরের সংখ্যাও প্রায় তিনশ’।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগ ও বেঙ্গল প্লা’ন্ট রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট যৌথভাবে নতুন জাতের হলুদ পদ্ম নিয়ে গবেষণা চা’লিয়েছে।

গবেষকদের মতে, বিশ্বের মধ্যে এটা পদ্মের নতুন এক জাত। গবেষকদের মতে, উদ্ভিদ বিজ্ঞানে হলুদ পদ্ম হবে অনন্য সং’যো’জন।

নতুন এই জাতের পদ্মের ছবিসহ কিছু ত’থ্য-উ’পাত্ত যু’ক্তরাষ্ট্রে হার্ভা’র্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ ও প্রা’ণী প্রজাতির নামকরণ বিভাগ এবং বিশ্বের সবচেয়ে বড় হারবেরিয়ান জাদুঘর ইংল্যান্ডের কিউ গার্ডেনে পাঠিয়েছেন গবেষকরা।

আন্তর্জাতিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে উদ্ভিদবিজ্ঞানে হলুদ পদ্ম হবে অনন্য সং’যো’জন। এমনকি হবে আলাদা নামকরণও।

x