আপনি যদি এখানে থাকতে পারেন, তাহলে পেয়ে যাবেন নগদ ৭ লক্ষ টাকা, কিন্তু কেন? জানতে পড়ুন বিস্তারিত।

এই শহরটি পাহাড় দিয়ে ঘেরা, একদম পুরোপুরি ছবির মতো সুন্দর। পাহাড় হলেও এখানে আধুনিক জীবন যাপনের জন্য সুবন্দোবস্তও রয়েছে। জানলে অবাক হবেন, এখানকার মেয়র এখানে বসবাস করার জন্য বাসিন্দাদের ৭ লক্ষ টাকা দিচ্ছেন।

না, আমি একদমই মিথ্যে বানিয়ে কিছু বলছিনা, মোটেও এটা কোনো গল্পকথা নয়। ইতালির লোকানা নামের এই শহরে গিয়ে বসবাস করলেই এই শহরের মেয়র সেখানকার বাসিন্দাদের ১০,০০০ মার্কিন ডলার প্রদান করবেন বলে জানিয়েছেন।

এই তথ্য আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘পিপল’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, উত্তর ইতালির পিডমন্টের অবস্থিত এই ছোট্ট শহরটির জনসংখ্যা এই মুহূর্তে মোট ১৫০০ জন। বিংশ শতকের গোড়ায় ইতালির আরেক বিখ্যাত শহর “তুলিন” থেকে মাত্র ৪৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই শহরের জনসংখ্যা ছিল মোট ৭০০০ জন। কিন্তু বর্তমানে ২০১৯-এ তা কমে ১৫০০-এ এসে দাঁড়িয়েছে।

এখন এই শহরের কমে যাওয়া জনসংখ্যাই এখানকার মেয়র জভান্নি ব্রুনো মাত্তিয়েতের রীতিমত মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি জানিয়েছেন যে, তিনি আবার এই শহর “লোকানোতে” আগের মতোই জনসংখ্যার ভিড় দেখতে চান। তাই এবার তিনি রীতিমত বাধ্য হয়েই পৃথিবীর যে কোনও প্রান্ত থেকেই মানুষকে তাঁর এই শহরে এসে বসবাস করার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন। তবে হ্যাঁ , এখানে কিন্তু বসবাস করার শর্ত রয়েছে।

এবং শর্তটি হল— এখানে বসবাসকারী পরিবারকে বছরে কম পক্ষে ৪.৮ লাখ টাকা আয় করতে হবে এবং তাদের অন্তত একটি সন্তান ও থাকতে হবে। আর মেয়র তাঁর প্রতিশ্রুতি মতোই ৭ লক্ষ টাকা এই এলাকায় বসবাসকারী পরিবারটিকে তিন বছর ধরে প্রদান করবেন। বর্তমানে ইতালির বেশ কিছু শহর বিভিন্ন কারণে তাদের জনসংখ্যা কমেছে।

এই শহর অর্থাৎ “লোকানা” ও তাদের মধ্যে অন্যতম। এই শহরের বেশির ভাগ বাসিন্দাই বর্তমানে তুরিনে চলে গিয়ে বসবাস করছেন। এমনকি এখন এই শহরের এমনই অবস্থা যে, স্কুলগুলির ছাত্রসংখ্যা বর্তমানে এতটাই কমে গেছে যে সেগুলো এখন রীতিমত বন্ধ হওয়ার মুখে।

ইতিমধ্যেই এখানে বেশ কিছু দোকান, পানশালা, রেস্তোরাঁ ও বন্ধ হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ আপনি যদি এখানে এসে বসবাস করে মেয়রের দেওয়া এই সামান্য শর্ত পালন করতে পারেন, তাহলে অসামান্য এই সুন্দর শহরের বাসিন্দা হতে পারবেন আপনিও.

x