প্রযোজকের সঙ্গে সে’ক্স করার প্র’স্তা’ব দেয়া হয় আমাকে: ঢাবি ছাত্রী

আয়নাবাজীখ্যাত জনপ্রিয় চলচ্চিত্র পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরীর বিরু’দ্ধে কাজের বিনিময়ে কু’প্র’স্তাব দেয়ার অ’ভি’যো’গ তুলেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুমাইয়া অনন্যা । শুধু তাই নয়, অভিনয় করতে হলে তাকে প্রযোজকের সঙ্গে শা’রি’রীক স’ম্প’র্ক করার কথাও বলা হয় বলে অ’ভি’যো’গ ওই শিক্ষার্থীর।

এর আগে গত ৯ সেপ্টেম্বর সুমাইয় অনন্যাকে দেয়া কু’প্র’স্তা’বের স্ত্রিনশট সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ করেন। পরে মুহূর্তেই তা ছড়িয়ে পড়ে। পরদিন ১০ সেপ্টেম্বর নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ‘স্ক্রিনশটের আইডিটি ভু’য়া দাবি করেন অমিতাভ রেজা। তার নামে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে কু’চ’ক্রী মহল মেয়েদের সাথে প্র’তা’র’ণা করছে বলেও জানান তিনি।

সম্প্রতি ঢাবি শিক্ষার্থী সুমাইয়া অনন্যা এক ভিডিও বার্তায় গণমাধ্যমকে অভিযোগ করেন, মুঠোফোন প্রতিষ্ঠান বাংলালিংকের একটি বিজ্ঞাপন ও বিলবোর্ডের সুযোগ দেওয়ার কথা বলে অমিতাভ রেজা চৌধুরী তাকে অনৈ’তিক প্র’স্তাব দেন। ম্যাসেঞ্জারের পাশাপাশি ভিডিওকলেও তার সাথে কথা হয়েছে বলে দাবি করেন অভিযোগকারী এ শিক্ষার্থী।

ভিডিও বার্তায় ভু’ক্ত’ভো’গী সুমাইয়া বলেন, ৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে অমিতাভ রেজা নামক একটি আইডি থেকে ম্যাসেজ আসে আমি মডেলিং করতে চাই কিনা। তিনি আমাকে এরকম সুযোগ করে দেয়ার আশ্বাস দেন। তার সঙ্গে ভিডিও কলে আসলে আমিও তাকে দেখেছি। কিন্তু সে কথা বলেননি।

তিনি জানিয়েছিলেন, স্টুডিওতে কথা বলা যাবে না। এরপরে তিনি আমাকে জানিয়েছেন বাংলালিংকের শ্যুটের জন্য আমাকে পছন্দ হয়েছে। কিন্তু আমাকে প্রডিউসারের সঙ্গে শা’রি’রীক স’ম্প’র্ক করতে হবে। আমি তখন তাকে না করে দেই সাথে সাথে।

তবে এসব অ’ভি’যো’গ অ’স’ত্য বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী। ভু’য়া অ্যাকাউন্টের হ’য়’রা’নি থেকে রক্ষা পেতে আইনি ব্যবস্থা নেবেন বলেও হুঁশি’য়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

অমিতাভ রেজা বলেন, ফে’ক প্রোফাইলের এই বি’ড়’ম্ব’না আমি অনেকদিন যাবৎই পেয়ে আসছি। অনেকবার এরকম বিভিন্ন জায়গায় রিপোর্ট করেছি। এটা একেবারে বিভৎস। নিজের একমাত্র ভেরিফাইড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ছাড়া আর অ্যাকাউন্ট নেই জানিয়ে কোনো ভু’য়া আইডিকে কাজের বিষয়ে সাড়া না দেয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

আয়নাবা’জিখ্যাত পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী। প্রথম সিনেমাতেই বাজিমাত করেন বক্সঅফিস, রেকর্ডসংখ্যক ব্যবসায় নড়েচড়ে বসে সিনেমাপাড়া। ২০১৬তে ৭ ক্যাটাগরিতে পায় ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এরপরের গল্পটি আরো পরে। বিজ্ঞাপন আর টিভি নাটক বানিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা অমিতাভ পরিচালক বনে নিজ গুণে পান পরিচিতি। সবশেষ কাজ করছিলেন বাংলাদেশ যুক্ত’রাষ্ট্র যৌথ প্রযোজনার ছবি নায়মার রং সিনেমায়।

x