জমি লিখে নিয়ে বাবা মাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে ছেলেরা

জমি লিখে নিয়ে অসুস্থ বৃদ্ধ বাবা জামেরুল (৭০) ও মা রাশেদাকে (৬৫) বাড়ি থেকে বের করে দেন তিন ছেলে। কোনো উপায় না পেয়ে একটি বন্ধ স্কুলের কক্ষে আশ্রয় নেন তারা।

পরে পু’লি’শ জানতে পেরে তাদেরকে উ’দ্ধা’র করে বাড়িতে ফিরিয়ে দেয়ার উদ্যোগ নেন। নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর এলাকার উত্তর নারীভাড়ি মহল্লায় এ ঘটনা ঘটেছে। রাশেদা বেগম জানান, তার স্বামী প্যারালাইসিসের রোগী। চিকিৎসার জন্য জমিজমা প্রায় শেষ।

অবশিষ্ট মাত্র তিন শতক জায়গা ছিল। কিন্তু ভরণপোষণের আশ্বাস দিয়ে সেগুলো লিখিয়ে নেন তাদের তিন ছেলে জালাল (৪৫,) আলাল (৪২) ও রসুল (৩৮) । কিন্তু কিছুদিন পর ভরণপোষণ বন্ধ করে দেয় ছেলেরা। তিনি আরও জানান, রোববার ছোট ছেলের কাছে খাবার চান তিনি।

তখন তার সঙ্গে খা’রা’প ব্যবহার করতে থাকেন তিনি। এক পর্যায়ে বৃদ্ধা মাকে বাড়ি মেরামতের অজুহাতে বাসা থেকে তাড়িয়ে দেন। এ সময় তারা উপায় না পেয়ে পার্শ্ববর্তী শহীদ মবিদুল উচ্চ বিদ্যালয়ের বারান্দায় আশ্রয় নেন।

পরে স্কুলের প্রধান শিক্ষক মিটিং করতে এসে ওই দৃশ্য দেখে তাদেরকে একটা কক্ষ খুলে দেন। গুরুদাসপুর থা’না’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওসি মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন, সংবাদ পেয়ে অন্ধকার কক্ষ থেকে বৃদ্ধ মা-বাবাকে উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়ে নেয়া হয়েছে।

তাদেরকে ১০ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, তেল ও আলুসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেয়া হয়েছে।তাদের ছেলেদের জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য থানায় আনা হয়েছে। বৃদ্ধ দম্পতিদের নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা

x