রাতভর নি’র্যাতনের পর কোদাল দিয়ে কা’টা হলো কি’শোরের চুল

গরু চু’রির অ’পবাদে এক কি’শোরকে বেঁধে রাতভর অমানবিক নি’র্যাতন চালানোর অ’ভিযোগ উঠেছে। এছাড়া গলায় জুতার মালা ঝোলানোসহ কোদাল দিয়ে উপড়ে ফেলা হয়েছে তার মা’থার চুল।

শুক্রবার রাতে কক্সবাজারের উখিয়া উপজে’লার জালিয়া পালং পশ্চিম সোনার পাড়া মোনাফ মা’র্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আর এই অমানবিক দৃশ্যটি উপভোগ করে তার প্রতিবেশীরা। তারা এর ছবি ও ভিডিও ধারণ করে।

শনিবার সকালে ঘটনাস্থল থেকে সৈয়দ আহম’দ নামের ওই কিশোরকে উ’দ্ধার করে হাসপাতা’লে পাঠানো হয়। ভুক্তভোগী সৈয়দ আহম’দ পশ্চিম সোনার পাড়া এলাকার জাকির হোসেনের ছে’লে। এ ঘটনায় জ’ড়িত কেউ এখনো আ’ট’ক হয়নি।

এলাকাবাসী জানিয়েছে, একই এলাকার শামসুল আলমের ছে’লে জালাল আহম’দ এ ঘটনা ঘটিয়েছে। জালাল উদ্দিন মানবপাচারসহ বহু মা’মলার আ’সামি বলেও জানান তারা।

পরে অ’ভিযু’ক্ত জালাল আহম’দসহ চারজনকে আ’সামি করে উখিয়া থা’নায় একটি অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন নি’র্যাতনের শিকার ছৈয়দ আহম’দের বোন জোবাইদা বেগম।

জোবাইদা বেগম জানান, স্থানীয় সামশুল আলমের ছে’লে জালাল আহম’দ বিনা অ’প’রাধে আমা’র ভাই সৈয়দ আহম’দকে সোনারপাড়া বাজার থেকে ধরে নিয়ে গরু চো’রের অ’ভিযোগ এনে ব্যাপক নি’র্যাতন করে।

সারা রাত বাড়ির উঠানে গাছের সঙ্গে রশি দিয়ে বেঁধে গলায় জুতার মালা পরিয়ে দিয়ে মা’থা ন্যাড়া করে দেয়। পরে কোদাল দিয়ে মা’থা ন্যাড়া করার নামে মা’থায় আ’ঘাত করে।

এ ঘটনায় আমা’র ভাই জ্ঞান হারিয়ে ফেললে সকালে স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোহাম্ম’দ রফিক ঘটনাস্থল থেকে তাকে উ’দ্ধার করে হাসপাতা’লে প্রেরণ করে।

ঘটনা প্রসঙ্গে জালিয়া পালং ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার রফিকুল্লাহ জানান, যে গরুটি চু’রির অ’ভিযোগ করা হয় সে গরুটি মুহাম্ম’দের বাড়িতেই ছিল। তবু অ’প’রাধী হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে মা’রধর না করার অনুরোধ জানাই। তারা সেটা শোনেনি।

তিনি আরো বলেন, শনিবার সকালে খবর পাই কোদাল দিয়ে ছৈয়দের মা’থা মুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। রাতভর মা’রধরসহ অমানুষিক নি’র্যাতন করেছে তারা। এর একটি ভিডিও হাতে পাই।

অ’ভিযু’ক্ত জালাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। তিনি বলেন, এলাকায় যাতে আর কোনো সময় গরু চু’রির মতো ঘটনা না ঘটে, পুরো এলাকাবাসীকে শিক্ষা দেয়ার জন্য এটি করা হয়েছে। তাতে অন্য কোনো উদ্দেশ্য নাই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উখিয়া থা’নার নবাগত ওসি মোহাম্ম’দ মন্জুর মোরশেদ জানান, আমি সবেমাত্র থা’নায় যোগদান করেছি। অ’ভিযোগটি আমা’র কাছে এখনো আসেনি। এ রকম অ’ভিযোগ পেলে ত’দন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

x