মুস্তাফিজের ১ কোটি টাকার ক্ষতি

শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হওয়ার সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান। তার কারণ শ্রীলঙ্কা সিরিজের জন্য এবারের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএল এর তিনটি দলকে না বলে দিয়েছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজকে পেতে বেশ আগ্রহ দেখিয়ে ছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং কলকাতা নাইট রাইডার্স।

সর্বশেষ সেই তালিকায় যোগ দিয়েছিল রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। আইপিএলে মোস্তাফিজুর রহমানের বেস প্রাইস ছিল এক কোটি টাকা। কিন্তু শ্রীলঙ্কা সিরিজ থাকার কারণে আইপিএলকে না বলে দিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু এখন শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হয়ে গিয়েছে।

তাই শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হওয়া খুবই হতাশ মোস্তাফিজুর রহমান। আজ দেশের একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ” আমাদের সবার মন খারাপ। মাঠে ফেরার সুযোগ এসেছিল।

মনে হচ্ছিল করোনার ভয়াল থাবার ভেতরেও আমরা আবার ক্রিকেটে ফিরব। আবার বল ও ব্যাট হাতে মাঠে নামব। টেস্ট খেলার আশায় প্রস্তুতিও নিচ্ছিলাম। আমি সাদা বলের চেয়ে লাল বলেই অনুশীলন করেছি বেশি। কিন্তু হায়! শেষ পর্যন্ত সফর বাতিল হয়ে গেল। সবার মতো আমারও মন খুব খারাপ।’

‘মন খারাপের পাশাপাশি আফসোসও হচ্ছে। কলকাতা ও মুম্বাই থেকে যোগাযোগ করেছিল। আমাকে পেতে খুবই উৎসাহী ছিল তারা। এ ছাড়া ব্যাঙ্গালুরু থেকেও শেষ দিকে ফোন করেছিল। শ্রীলঙ্কা সফর না থাকলে হয়তো আমি ঠিকই চলে যেতাম আইপিএল খেলতে।

গেলে যে সব ম্যাচ খেলতে পারতাম তা বলব না। তবে দলের সঙ্গে থাকা হতো, প্র্যাকটিস করা যেত। নিজেকে ধীরে ধীরে তৈরি করতে পারতাম। এক সময় ম্যাচ খেলার সুযোগ চলে আসত। আমার ক্যাটাগরিতে প্রস্তাবটা ছিল ১ কোটি টাকার। তা থেকেও বঞ্চিত হলাম। সব মিলে খারাপই লাগছে।

x