জীবনানন্দ দাশ সম্পর্কে অজানা তথ্য |

জীবনানন্দ দাশের জীবন বৃত্তান্তঃ
ছন্দঃ এই মহাপৃথিবীর বেলা অবেলা কাল বেলায় রূপসী বাংলার মেয়ে বনলতা সেন সাতটি তারার তিমিরে বসে ঝরা পালক দিয়ে ধূসর পান্ডুলিপিতে ‘কবিতার কথা’ প্রবন্ধটি লিখলেন।

জীবনানন্দ দাশের রচিত কাব্যগ্রন্থগুলি: মহাপৃথিবী, বেলা অবেলা কাল বেলায়, রূপসী বাংলা,
সাতটি তারার তিমির, ঝরা পালক, ধূসর পান্ডুলিপি

জন্মঃ ১৮৯৯ সালের ১৭ই ফ্রেরুয়ারি

জন্মস্থানঃ বরিশাল জীবনানন্দ দাশের আদি নিবাস, বিক্রমপুরে জীবনানন্দ দাশ কোন পত্রিকার সাহিত্য বিভাগের সম্পাদনা করতেন? দৈনিক স্বরাজ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জীবনানন্দ দাশের কবিতাকে কী বলেছেন?

চিত্ররূপময় কবিতা

জীবনানন্দ দাশের কবিতায় কী কী দীপ্যমান?আধুনিক নাগরিক জীবনের হতাশা,নিঃসঙ্গতা,বিষাদ ও সংশয়ের চিত্র।‘কবিতার কথা’

নামেই আবার প্রবন্ধ লিখেছেন- সৈয়দ আলী আহসানজীবনানন্দ দাশের ১ম পালক ঝরে -১৯২৭ সালে(ঝরা পালক)‘বনলতা সেন’ কাব্যগ্রন্থটি “To Helen”কবিতা অবলম্বনে লেখামূল লেখক- Adger Allan poe

জীবনানন্দ দাশের উপন্যাস

কল্যাণী তাঁর সতীর্থকে মাল্যবান করার জন্য জলপাই হাটিতে গেল। কল্যানী,সতীর্থ,মাল্যবান ,জলপাই হাটি জীবনানন্দ দাশের

মৃ’ত্যুঃ ১৯৫৪ সাল ট্রাম দুর্ঘটনায় আহত হন এবং পরে হাসপাতালে তাঁর মৃ’ত্যু হয়।

x