আব্বা গো তোর আল্লাহর দোহাই ছাড়ি দে

সম্পূর্ণ বিব’স্ত্র অব’স্থায় গো’ঙাচ্ছে, কাঁদছে এক নারী। সেই স’ঙ্গে বলছে-বাবা গো আমাকে ছেড়ে দে। ‘আব্বা গো তোর আল্লাহ’র দোহাই ছাড়ি দে!

আর আশ’পাশের ২০-২৫ বছরের ছে’লে’গুলো হায়ে’নার ম’তো হাসছে আর বলছে-উ’ল্টা, উ’ল্টা, উ’ল্টা! কারণ বিব’স্ত্র ওই নারী নিজেকে বাঁ’চা’নোর জন্য ও’পর হয়ে শু’য়ে কাঁদ’ছিল আর বলছিল- এরে আ’ব্বা গো, তো’গো আ’ল্লাহ’র দোহাইরে।

কোন যু’দ্ধে’র সময়ের বর্ব’রো’চিত গল্প নয়। নোয়া’খা’লীর বেগ’মগ’ঞ্জে ঘটে যাওয়া আলো’চিত ঘ’টনা এটি। স্বা’মীকে বেঁ’ধে রেখে স্ত্রী’’’কে ধ’র্ষণ এবং নি’র্যা’তনের ঘট’নার ভিডি’ওতে ঠিক এই দৃশ্য’গুলো’ই ধ’রা পড়ে।

এদিকে, ঘট’নার পর থেকে অ’ভি’যু’ক্ত দেলো’য়ার, বাদল, কা’লাম ও তাদের সহ’যো’গীরা ভু’ক্তভো’গী গৃহ’বধূর পরি’বারকে অ’বরু’দ্ধ করে রাখে। এতে ঘট’নাটি ধা’মাচা’পা থাকে।

নারী পরে রো’ববার দুপুরে ভি’ডিওটি সামা’জিক যোগা’যোগ মা’ধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মু’হূর্তে’ই ভা’ই’রাল হয় এবং প্রশা’সনের নজরে পড়ে।

রোববার বিকেলে ঘট’না’স্থল পরিদ’র্শনে এসে অ’ভি’যু’ক্ত আ’ব্দুর রহিম নামে এক যুব’ককে আ’ট’ক করেছে পু’লিশ। পরে একে একে মূ’ল হোতা বাদলসহ দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলো’য়ারকেও অ’স্ত্রস’হ গ্রে’ফতার করা হয়।

x